অধ্যক্ষ মহোদয় সম্মানিত শিক্ষকবৃন্দ বি এন সি সি বিজয় র‍্যালী ২০১৬ , মৌলভীবাজার সরকারি মহিলা কলেজ অফিস কর্মচারী ২০১৭ বিজ্ঞানাগার শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাব কর্মচারীদের একাংশ

আমাদের কলেজ

ভাষা আন্দোলন ও শহীদ স্মৃতি বিজড়িত মহান ফেব্রুয়ারি মাস। ১৯৮৫ খ্রিস্টাব্দের এই মাসেই মৌলভীবাজারের বিদগ্ধ শিক্ষানুরাগী জনসাধারণ নারী শিক্ষার উন্নয়নে একটি মহিলা কলেজ প্রতিষ্ঠার সংগ্রামে একাত্ম হন এবং ১৮ই ফেব্রুয়ারি ১৯৮৫ সালের এক মাহিন্দ্রক্ষণে আনুষ্ঠানিকভাবে কলেজের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেন বৃহত্তর সিলেটের সুনামগঞ্জ এর কৃতি সন্তান, মৌলভীবাজার জেলার প্রথম জেলা প্রশাসক জনাব মোঃ শাকির উদ্দিন আহমদ।

সর্বস্তরের জনসাধারণ, শিক্ষানুরাগী ব্যক্তিবর্গ এবং সরকারি সহায়তায় স্থানীয় হাফিজা খাতুন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে অস্থায়ী ক্যাম্পাসে পাঠদান কার্যক্রম শুরু হয়। একই সাথে জেলা জজ আদালতের পূর্ব পার্শ্বে জেলা প্রশাসকের খাস খতিয়ানভুক্ত ৩.৭৯ একর জমি বন্দোবস্ত দিতে জেলা প্রশাসক জনাব শাকির উদ্দিন আহমদ সম্মতি প্রদান করেন। অত:পর এই জমিতে স্থায়ী ক্যাম্পাস নির্মাণের প্রক্রিয়া শুরু হয়। অতি দ্রুততার সাথে স্থায়ী ক্যাম্পাসে একাডেমিক ভবন নির্মাণ করে ১৯৮৭ সালে ১৪ই জানুয়ারি চট্টগ্রাম বিভাগের বিভাগীয় কমিশনার মৌলভীবাজারের কৃতি সন্তান জনাব আলী হায়দার খান আনুষ্ঠানিকভাবে কলেজের দ্বারোঘাঠন করেন এবং কলেজের উন্নয়নে তাঁর ঐচ্ছিক তহবিল থেকে ৯ লক্ষ টাকা অনুদান প্রদান করেন।

কলেজের প্রথম ক্লাস শুরু হয় ১৭/০৩/১৯৮৫ তারিখে এবং কুমিল্লা বোর্ডের স্বীকৃতি লাভ করে ০১/০৭/১৯৮৭ খ্রি:। ১৯৯২-৯৩ শিক্ষাবর্ষ থেকে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে ¯œাতক (পাস) কোর্সের কলা ও সামাজিক বিজ্ঞানে ভর্তির কার্যক্রম চালু হয় এবং ২০১২-১৩ শিক্ষাবর্ষ থেকে বাংলা, রাষ্ট্রবিজ্ঞান, সমাজবিজ্ঞান বিভাগে অনার্স কোর্স চালু হয়। পরবর্তীতে ইংরেজি, অর্থনীতি, ইতিহাস, ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি, হিসাববিজ্ঞান ও ব্যবস্থাপনপ বিভাগসহ মোট ০৯ (নয়টি) বিষয়ে অনার্স কোর্স চালু হয়।

১৯৮৫ সালে ১০ই ফেব্রুয়ারি মৌলভীবাজার জেলার জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে মহিলা কলেজ স্থাপনের জন্যে প্রথম সভা অনুষ্ঠিত হয়। মৌলভীবাজার মহিলা কলেজ এর উন্নয়নে জেলার সর্বস্তরের শিক্ষানুরাগী, দানশীল ব্যক্তিবর্গ এবং সরকারি- বেসরকারি সহযোগিতা ছিল উল্লেখ করার মত। বিশেষত: বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও সুশীল সমাজের নেতৃবৃন্দের অকুণ্ঠ সমর্থন ও সাহায্য সহযোগিতায় এবং মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঐতিহাসিক ঘোষণার মাধ্যমে ১৯৯৭ সাল থেকে এটি সরকারি কলেজে রূপান্তরিত।

নোটিশ বোর্ড

অধ্যক্ষ

চায়ের রাজধানী খ্যাত প্রাকৃতিক সৌন্দর্য মন্ডিত মৌলভীবাজার জেলা সুদূর অতীত থেকেই শিক্ষা সাহিত্য ও সংস্কৃতিক্ষেত্রে একটি অগ্রগামী জনপদ। এখনকার বিদগ্ধ ও প্রাগ্রসর জনসাধারণের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় ১৯৮৫ সালের ১৮ই ফেব্রুয়ারি মৌলভীবাজার সরকারি মহিলা কলেজ এর ঐতিহাসিক যাত্রা শুরু হয়। পরবর্তিতে ১৯৯৭ সালে সদাশয় সরকার কলেজটিকে জাতীয়করণ করেন। বর্তমানে এই কলেজে উচ্চম্যাধমিক, ¯œাতক ও অনার্স পর্যায়ে প্রায় ১০ সহ¯্রাধিক ছাত্রী অধ্যয়ন করছে, যা এর প্রতিষ্ঠার সার্থকতাকেই প্রতিফলিত করে। এই জেলার নারী শিক্ষার সর্বোচ্চ এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে একটি ডায়নামিক ওয়েব সাইট চালুর উদ্যোগে খুবই আনন্দিত। তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের মধ্যে জ্ঞান ও তথ্য আদান প্রদানের অবারিত সুযোগ তৈরি হবে। আশাকরি এতে কলেজের সামগ্রিক কর্মকান্ডের প্রতিফলন হবে এবং মানসম্মত শিক্ষা বিস্তারে খুবই ফলপ্রসূ ভূমিকা রাখবে।

অধ্যাপক মোঃ আজিজুর রহমান

অধ্যক্ষ

মৌলভীবাজার সরকারি মহিলা কলেজ

অধ্যক্ষ

চায়ের রাজধানী খ্যাত প্রাকৃতিক সৌন্দর্য মন্ডিত মৌলভীবাজার জেলা সুদূর অতীত থেকেই শিক্ষা সাহিত্য ও সংস্কৃতিক্ষেত্রে একটি অগ্রগামী জনপদ। এখনকার বিদগ্ধ ও প্রাগ্রসর জনসাধারণের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় ১৯৮৫ সালের ১৮ই ফেব্রুয়ারি মৌলভীবাজার সরকারি মহিলা কলেজ এর ঐতিহাসিক যাত্রা শুরু হয়। পরবর্তিতে ১৯৯৭ সালে সদাশয় সরকার কলেজটিকে জাতীয়করণ করেন। বর্তমানে এই কলেজে উচ্চম্যাধমিক, ¯œাতক ও অনার্স পর্যায়ে প্রায় ১০ সহ¯্রাধিক ছাত্রী অধ্যয়ন করছে, যা এর প্রতিষ্ঠার সার্থকতাকেই প্রতিফলিত করে। এই জেলার নারী শিক্ষার সর্বোচ্চ এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে একটি ডায়নামিক ওয়েব সাইট চালুর উদ্যোগে খুবই আনন্দিত। তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের মধ্যে জ্ঞান ও তথ্য আদান প্রদানের অবারিত সুযোগ তৈরি হবে। আশাকরি এতে কলেজের সামগ্রিক কর্মকান্ডের প্রতিফলন হবে এবং মানসম্মত শিক্ষা বিস্তারে খুবই ফলপ্রসূ ভূমিকা রাখবে।

অধ্যাপক মোঃ আজিজুর রহমান

অধ্যক্ষ

মৌলভীবাজার সরকারি মহিলা কলেজ